একটি পড়ার মত বই

সায়ীদ যাদীদ

কাকে বলি পড়ার মত বই ? যে বইটি পড়তে গিয়ে ধূমায়িত চায়ের কাপে চুমুক দিতে ভুলে যাই, ইনকামিং ফোন কলটি ধরতে গিয়েও ধরি না, গিন্নীর ডাকাডাকি কানেও তুলি না, যাবো যাচ্ছি করতে করতে খাওয়া আর ঘুমের সময়টাও পেরিয়ে যায়, এমনকি, বাথরুমে যাওয়াটাও পারলে ঠেকিয়ে রাখি, তাকেই বলি পড়ার মত বই।
এমনই একটি ‘পড়ার মত বই’ লিখেছেন আমাদের আকতার হোসেন ভাই। ইতিহাসভিত্তিক উপন্যাস। নাম, ‘মিস্টার প্রেসিডেন্ট।’ সাহিত্যে, শিল্পকলায় আকতার ভাই বহুমুখী প্রতিভাধর মানুষ। তাঁর মত একজন মানুষ যখন অস্ত্র হাতে যুদ্ধে গিয়ে একটি ফুলকে বাঁচিয়ে ফিরে এসে সেই ফুলের বর্ণগন্ধছন্দকে তাঁর লেখার উপজীব্য করেন, তখন তা সত্য ও সুন্দরের চ্ছটায় দীপ্যমান হয়ে ওঠে, অন্য মাত্রা পায়। বিচারপতি এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য জনাব আবু সাইদ চৌধুরীই ‘মিস্টার প্রেসিডেন্ট’ – প্রবাসে যাঁর মুক্তিযুদ্ধকালীন কর্মযজ্ঞের ইতিহাসকে আশ্রয় করে গড়ে উঠেছে উপন্যাসের পরিকাঠামো।

২৪০ পৃষ্ঠার এই ‘পড়ার মত বই’টির ভূমিকা লিখেছেন শ্রদ্ধেয় কবি আসাদ চৌধুরী। তাঁর ভাষায়, “একটি অসাধারণ বই, গত কয়েক বছরের মধ্যে আমি এ রকম বই পড়িনি।” কবির এই মন্তব্যের পরে আর কিছু বলা মানে বাচালতা, ঘোড়া ডিঙ্গিয়ে ঘাস খাওয়া। তবে, আমার ঐ এক কথা – একটি পড়ার মত বই।